আমরা অনেক সময় খবরের কাগজে ডাস্টবিনের পাশে শিশু ফেলে রেখে যাওয়ার ঘটনা পড়ে থাকি। এ রকম অমানবিক সংবাদে যে কোনো সংবেদনশীল মানুষেরই মন খারাপ হয়ে যাওয়ার কথা। বহু বছর আগে এ রকমই এক ঘটনা ঘটেছিল কলকাতা শহরে।

কলকাতার এক রাস্তার ডাস্টবিনের পাশে একটি কন্যা শিশুকে পড়ে থাকতে দেখা গেলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পুলিশের কাছ থেকে শিশুটিকে দেখাশোনার জন্য নিয়ে যায় একটি সেচ্ছাসেবক সংগঠন। এক কান দু কান ঘুরে খবরটি পৌঁছে যায় সুপারস্টার মিঠুন চক্রবর্তীর কাছে। অস্থির হয়ে যান তিনি। স্ত্রী যোগিতা বালির সাথে পরামর্শ করে সেদিনই তিনি শিশুটিকে দত্তক নিতে চলে যান।

রুগ্ন, জীর্ণ-শীর্ণ সেই শিশুটিকে দত্তক নিতে মিঠুন-যোগিতাকে সেদিন সারা রাত আইনি জটিলতা মিটাতে হয়েছিল। সব বাধা পেরিয়ে মিঠুন-যোগিতার চোখের মণি হয়ে বাড়িতে আসেন দিশানী চক্রবর্তী। বাবা-মায়ের আদরের, ভাইদের স্নেহের দিশানী বাড়িতে এসে জয় করে নেয় সবার হৃদয়।

সদ্য টিএনএজে পা দেওয়া দিশানী বাবার মতোই নিজের ক্যারিয়ার গড়তে চান সিনেমায়। আর এ জন্যই নিউ ইয়র্ক ফিল্ম অ্যাকাডেমিতে পড়াশোনাও করছেন তিনি। চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে গেলে আলোচনায় আসতে হবে, আর তাই হয়তো এতকাল মিডিয়ায় তাকে নিয়ে তেমন খবর শোনা না গেলে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার প্রচুর ছবি পাওয়া যাচ্ছে এবং সেগুলো বেশ আবেদনময়ী।

তার ফ্যাশন সেন্স নিয়ে ইতোমধ্যে প্রশংসা করছেন ফ্যাশন বোদ্ধারাও। যেহেতু বি-টাউনের সাথে দিশানীর যোগসূত্র সে-ই ছোট্টবেলা থেকেই, ফলে ফ্যাশন সচেতন মিঠুন কন্যাকে খুব শিগগিরই বলিউডের কোনো প্রজেক্টে দেখা যাবে বলে আশা করছে তার ঘনিষ্ঠজনেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *